দক্ষিণ কোরিয়ার জনপ্রিয় ইউটিউবার দাউদ কিমের পর এবার তার স্ত্রী ইসলাম গ্রহণ

বিশ্বজুড়ে ইসলামফোবিয়ার বিষবাষ্পকে প্রতিহত করে প্রতিনিয়তই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে ধর্মান্তরিত মুসলিমের সংখ্যা।

প্রাচ্য থেকে পাশ্চাত্য পৃথিবীর প্রতিটি দেশে শিক্ষিত তরুণ সমাজের একটা অংশ ভোগবাদী জীবন ছেড়ে আত্মীক শান্তির লক্ষ্যে ধর্ম হিসেবে বেছে নিচ্ছে সুগঠিত নিয়মতান্ত্রিক জীবনব্যাবস্থা ইসলামকে।

পূর্ব এশিয়ার দেশ দক্ষিণ কোরিয়ায় বসবাসকারী মুসলিম দের সংখ্যা মাত্র দুই লক্ষ যা মোট জনসংখ্যার 0.2 শতাংশ হলেও সেখানে দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে ইসলাম অনুসারীর সংখ্যা।

গতবছর ইসলাম গ্রহণ করে সাড়া ফেলে দেন তরুণ ইউটিউবার ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ডেভিড কিম পরিবর্তিত নাম দাউদ কিম।

বর্তমানে তিনি দক্ষিণ কোরিয়ার বৈরী পরিস্থিতিতে ইসলামের নানান দিক নিয়ে সচেতনতার কাজ করে চলেছেন। তুলে ধরেছেন দেশটিতে ইসলাম তথা মুসলিমদের ছোট ছোট বিষয় গুলোও।

তাঁরই পথ ধরে নওমুসলিম দাউদ কিমের স্ত্রী মিঞা কিম নিজের স্বামীর কাছেই ইসলাম গ্রহণ করলেন। এক ভিডিও বার্তায় সেই সুখবর নিজেই জানালেন দাউদ কিম।

আরও সংবাদ

নুরকে ‘সাহসী যুবক’ বলে মন্তব্য করলেন জার্মান রাষ্ট্রদূত

গতকাল বুধবার ঢাকায় নিযুক্ত জার্মান রাষ্ট্রদূত পিটার ফাহরেনহল্টজের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর।

টুইটারে জার্মান রাষ্ট্রদূতের পক্ষ থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। এসময় নুরকে ‘সাহসী যুবক’ বলেও মন্তব্য করেন জার্মান রাষ্ট্রদূত।

তিনি বলেন, গণতন্ত্রের পক্ষে ও সাধারণ মানুষের অধিকার আদায়ের আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়ার কারণে আমাকে জার্মান দূতাবাসে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ২৮ বছর পর ডাকসু নির্বাচন হওয়ায় শিক্ষার্থীদের নির্বাচিত প্রতিনিধি এবং বাংলাদেশের দুটি আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়ার কারণে আমাকে জার্মান দূতাবাসে আমন্ত্রণ করা হয়েছে।

সেখানে বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক পরিবেশ কীভাবে ফিরিয়ে আনা যায় এবং বাংলাদেশকে কীভাবে মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা যায় সে বিষয়ে তারুণ্যের ভাবনা ও ভূমিকা নিয়ে কথা বলা হয়েছে।

এর আগেও আমেরিকান দূতাবাস ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের দূতাবাসের সাথে আমার কথা হয়েছে, তারাও এসব বিষয় নিয়ে কথা বলেন।