যুক্তরাষ্ট্রে বিপুল ভোটে আবারো বিজয়ী দুই মুসলিম নারী

যুক্তরাষ্ট্রে আবারো বিজয়ী মুসলিম দুই নারী
আবারো মার্কিন কংগ্রেস সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন ডেমোক্রেট প্রার্থী ৪১ বছরের ইলহান ওমর। সোমালিয় বংশোদ্ভূত এই মুসলিম নারী এ নিয়ে দ্বিতীয় মেয়াদে নির্বাচিত হলেন। এছাড়াও মার্কিন কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন আরো এক মুসলিম নারী রাশিদা তালিব।

ইলহান ওমর খুব সহজেই প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকান প্রার্থী ল্যাসি জনসনকে পরাজিত করেছেন।
তিনি তার নির্বাচনী এলাকা মিনেসোটা জেলায় ৯৭ শতাংশ ভোটারের ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। এর আগে ২০১৬ সালে মিনেসোটা রাজ্য সংসদের সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন ইলহান।

এছাড়া মিশিগানের ১৩তম কংগ্রেসনাল ডিস্ট্রিক্টে রিপাবলিকান প্রার্থী ডেভিড ডুডেনহোয়েফারকে হারিয়ে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন ডেমোক্রেট প্রার্থী ফিলিস্তিন বংশোদ্ভূত রাশিদা তালিব।
জয়ের পর রাশিদা তালিব জানিয়েছেন, কংগ্রেসে দ্বিতীয় মেয়াদে তিনি কোভিড-১৯ রোধে সবচেয়ে বেশি অগ্রাধিকার দেবেন এবং ফিলিস্তিনের মানবাধিকারের প্রতি চাপ অব্যাহত রাখবেন।

আরও সংবাদ

ভোট গণনা বন্ধ করতে সুপ্রিম কোর্টে যাচ্ছেন ট্রাম্প

ভোট গণনা চলাকালেই জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং তার প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন।

ভাষণে ট্রাম্প বলেন, ওরা আমাকে ধরতেই পারবে না। আমরা পেনসিলভিনিয়ায়ও বড় ব্যবধানে জিততে যাচ্ছি। আমাকে হারনো তাদের পক্ষে অসম্ভব। উইসকনসিনও আমরা জয় করতে যাচ্ছি।

বক্তব্যের এক পর্যায়ে ট্রাম্প নির্বাচনে জালিয়াতির প্রসঙ্গে তুলে নির্বাচনের ভোট গণনা বন্ধে সুপ্রিম কোর্টে আপিল করবেন বলে জানান। তবে ঠিক কিসের ভিত্তিতে ভোট জালিয়াতির অভিযোগ তুলেছেন তা পরিষ্কার নয় বলে জানিয়েছে

তিনি জোন গলায় নির্বাচনে জয়ী হওয়ার ঘোষণা দেন ভাষণে।

বিভিন্ন রাজ্য থেকে আসা ভোটের ফলাফলে দেখা গেছে, এখন পর্যন্ত ট্রাম্পের চেয়ে ১২টি ইলেকটোরাল ভোটে এগিয়ে আছেন বাইডেন। ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট প্রার্থী বাইডেন পেয়েছেন ২২৫টি ইলেকটোরাল ভোট। অপরদিকে রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প পেয়েছেন ২১৩টি ইলেকটোরাল ভোট। বেশ কয়েকটি রাজ্যে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা দেখা যাচ্ছে। তবে বেশি ইলেকটোরাল ভোট রয়েছে এমন কয়েকটি রাজ্যে এগিয়ে আছেন ট্রাম্প। ফলে পিছিয়ে থাকলেও নির্বাচনে জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে ট্রাম্পের।

এর আগে নিজের সামর্থ্য ও বক্তব্য তুলে ধরে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণা শিবিরের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা সিবিএস নিউজকে এই তথ্য জানিয়েছেন।

ওই জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন,‘হ্যাঁ, প্রেসিডেন্ট রাতে ভাষণ দেবেন। তখন ফলাফল ঘোষণা যদি নাও হয়, তবুও তার নিজের অবস্থান তুলে ধরতে হবে। হোয়াইট হাউজের ইস্ট রুম থেকে তিনি এই ভাষণ দেবেন।’

ট্রাম্পের কয়েকজন জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা বিবিসিকে জানিয়েছেন, ডেমোক্র্যাটরা ‘লাল মরীচিকা’ নামে যে কথাবার্তা বলছে, তাতে ট্রাম্প শিবিরে একপ্রকার হতাশা তৈরি হয়েছে। লাল হচ্ছে রিপাবলিকানদের প্রতীকী রঙ।

ডেমোক্র্যাটরা জানিয়েছেন, বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিজয়ের যে পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে, তা সঠিক নয়। কারণ সেখানে পোস্টাল ব্যালট অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। সেটা করা হলে ফলাফল ডেমোক্র্যাটদের দিকেই যাবে।

যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তীতে প্রেসিডেন্ট কে হচ্ছেন সেটা জানতে আরো কিছুটা সময় অপেক্ষা করতে হতে পারে। তবে তার আগে বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজেকে বিজয়ী ঘোষণা করেছেন।