অবশেষে ঝর্ণার মেডিকেল টেস্ট সম্পন্ন !

হেফাজত ইসলামের সাবেক কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের ‍বিরুদ্ধে ধ’র্ষ’ণ মামলার পর তার কথিত দ্বিতীয় স্ত্রী জান্নাত আরা ঝর্ণার মেডিকেল টেস্ট সম্পন্ন হয়েছে। আগামী রোববারএ রিপোর্ট পাওয়া যাবে।

শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) দুপুরে পুলিশ পাহারায় নারায়ণগঞ্জ সদর জেনারেল হাসপাতালে মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন করেন তিনি।

এর আগে সকালে মামুনুল হকের বিরুদ্ধে প্রলোভন, প্রতারণা, নি’র্যা’তনের অভিযোগ এনে সোনারগাঁ থানায় মামলা দায়ের করেন ঝর্ণা।

মামলা দায়েরের পর চলে যাওয়ার সময় থানা প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন মামুনুল হকের কথিত এই দ্বিতীয় স্ত্রী। এ সময় তিনি বলেন, ‘আমি নতুন জীবন ফিরে পেয়েছি।

আমি ভালো আছি। আমার সর্বশেষ কথা আমি সুষ্ঠু বিচার চাই। আমার সাথে অনেক বড় প্রতারণা করেছে (মামুনুল হক)। আমি এর বিচার চাই।

এদিকে, মামুনুল হক দ্বিতীয় স্ত্রী দাবি করলেও মামলার এজাহারে জান্নাত নিজেকে মামুনুল হকের স্ত্রী বলেননি। তিনি বলেন, ‘বিয়ের প্রলোভন ও অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে মামুনুল হক আমার সঙ্গে সম্পর্ক করেছেন।

কিন্তু বিয়ের কথা বললে মামুনুল করছি, করব বলে সময়ক্ষেপণ করতে থাকেন। ২০১৮ সাল থেকে ঘোরাঘুরির কথা বলে মামুনুল বিভিন্ন হোটেল, রিসোর্টে আমাকে নিয়ে যান।

মামুনুলের সঙ্গে পরিচয় প্রসঙ্গে ঝর্ণা বলেন, ‘২০০৫ সালে তার স্বামী মাওলানা শহীদুল ইসলামের মাধ্যমে মামুনুল হকের সঙ্গে পরিচয় হয়।

স্বামীর বন্ধু হওয়ায় আমাদের বাড়িতে মামুনুলের অবাধ যাতায়াত ছিল। মামুনুলের সঙ্গে পরিচয়ের আগে আমরা সুখে–শান্তিতে বসবাস করছিলাম।

আমাদের স্বামী-স্ত্রীর মতানৈক্যের মধ্যে প্রবেশ করে মামুনুল হক শহীদুল ও আমার মধ্যে দূরত্ব তৈরি করতে থাকেন।

মামুনুলের কারণে আমাদের দাম্পত্য জীবন চরমভাবে বিষিয়ে ওঠে। সাংসারিক এই টানাপোড়েনে একপর্যায়ে মামনুলের পরামর্শে বিবাহবিচ্ছেদ হয়।