শত্রুতা ভুলে ভারতের পাশে পাকিস্তান-চীন

করোনা মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ে ভেঙে পড়েছে ভারতের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা। রাত পোহালেই সংক্রমণ ও আক্রান্তের নতুন নতুন রেকর্ড বুক কাঁপিয়ে দিচ্ছে ভারতীয়দের।

এর মধ্যে করোনা রোগীদের জন্য সবচেয়ে জরুরি অনুষঙ্গ অক্সিজেনের তীব্র সংকট দেশটিকে আরও বিপর্যস্ত করে তুলেছে।

করোনা পরিস্থিতির ভয়াবহতা গড়িয়েছে দেশটির হাইকোর্ট ও সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত।

টুইটারে ট্রেন্ডিং হয়ে গেছে হ্যাশট্যাগ ‘IndiaNeedsOxygen’। এই পরিস্থিতিতে শত্রুতা ভুলে ভারতের পাশে দাঁড়াতে চায় পাকিস্তান ও চীন।

শত্রুতা ভুলে ভারতের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে পাকিস্তান। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত দেশটিকে ভেন্টিলেটর, বাইপ্যাপ,

ডিজিটাল এক্স-রে, পার্সোনাল প্রোটেক্টিভ ইক্যুপমেন্ট (পিপিই) কিটসহ বিভিন্ন সামগ্রী পাঠানোর প্রস্তাব দিয়েছে ইসলামাবাদ।

শনিবার (২৪ এপ্রিল) পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জাহিদ হাফিজ চৌধুরী টুইটারে বলেন, কোভিড-১৯-এর বর্তমানে ঢেউয়ের মধ্যে ভারতের মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদেরকে ভেন্টিলেটর, বাইপ্যাপ,

ডিজিটাল এক্স-রে, পিপিই কিটসহ বিভিন্ন সামগ্রী পাঠানোর প্রস্তাব দিয়েছে পাকিস্তান।

অপর একটি টুইটে বলা হয়, সেই সব সামগ্রী দ্রুত পাঠানোর জন্য ভারত এবং পাকিস্তানের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্তৃপক্ষ সেই বিষয়ে কাজ করতে পারে।

মহামারির কারণে যে চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হতে হচ্ছে, তা সমাধানের জন্য দু’দেশে সম্ভাব্য উপায়েরও সন্ধান করতে পারে।

দু’টি টুইটেই ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে ট্যাগ করা হয়েছে। তবে বিষয়টি নিয়ে নয়াদিল্লি এখনও কোনো প্রতিক্রিয়া দেখায়নি।

এর আগে শনিবার টুইটারে ইমরান খান লিখেছেন, করোনার বিপজ্জনক ঢেউয়ের বিরুদ্ধে লড়তে থাকা ভারতের মানুষের প্রতি আমাদের সমবেদনা।

আমাদের প্রতিবেশী দেশ এবং গোটা পৃথিবীতে যারা মহামারিতে ভুক্তভোগী সবার দ্রুত সুস্থতার জন্য প্রার্থনা করছি।

একসংগে মানবিক হয়ে এই বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে বলেও টুইটে উল্লেখ করেন ইমরান খান।