বিকালে আসছেন মুরাদ, প্রতিহতের ঘোষণা দিলেন সাধারণ মানুষ

ঢাকা ত্যাগের পর কানাডায় ঠাঁই হয়নি সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানের। এরপর দুবাই গিয়েও ভিসা জটিলতায় প্রবেশ করতে পারেননি। বর্তমানে তিনি দুবাই বিমানবন্দরেই আছেন।

দুবাইয়ের ভিসা পাওয়ার সম্ভাবনা আর নেই তার। তাই আজ (রোববার) বিকেলে চূড়ান্তভাবে দেশে ফেরার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। দুবাই বিমানবন্দরের দায়িত্বশীল সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

এদিকে মুরাদ হাসান যাতে দেশে ফিরতে না পারেন, এজন্য বিমানবন্দর সড়কে বিক্ষোভ করেছেন কয়েকজন। বিমানবন্দর এলাকার মূল ফটকের বাইরের সড়কে প্রায় ৩০-৪০ জন নিজেদের আওয়ামী লীগের কর্মী দাবি করে মুরাদকে রুখে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

বিক্ষোভে অংশ নেওয়া বিএম জহিরুল নামে একজন বলেন, মুরাদ বেশ কিছুদিন বিকৃত কথাবার্তা বলছিল। ইসলাম ও নারীবিদ্বেষী ছিল। সে প্রতিনিয়ত দাবি করতো, তার এসব বেফাঁস কথাগুলোর বিষয় নাকি প্রধানমন্ত্রীও অবগত আছেন।

তার এই মন্তব্য নারী সমাজকে অপমান করেছে। আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনাকে বিব্রত করেছে। আমরা চাই উনার সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হোক। তাকে দেশের ভেতরে ঢুকতে না দেওয়া হোক।

বিমানবন্দর এলাকায় মুরাদবিরোধী বিক্ষোভের বিষয়ে জানতে চাইলে মন্তব্য করেননি বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বি এম ফরমান আলী।