অবশেষে ৭০ বছরের পুরনো যুদ্ধের সমাপ্তি ঘোষণা করবে দুই কোরিয়া

অবশেষে দুই কোরিয়ার মধ্যকার যুদ্ধের ইতি টানতে নীতিগতভাবে একমত হয়েছে নর্থ কোরিয়া, সাউথ কোরিয়া, চীন ও যুক্তরাষ্ট্র। গতকাল সোমবার অস্ট্রেলিয়া সফররত সাউথ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জ্যা ইন এই কথা জানান। তবে নর্থ কোরিয়ার কিছু দাবির কারণে এখনও আলোচনা শুরু হয়নি বলে জানান তিনি।

এদিকে কোরীয় যুদ্ধের শুরু ১৯৫০ সালে। যা ১৯৫৩ সালে নর্থ ও সাউথ কোরিরার আলাদা রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশের মাধ্যমে শেষ হয়। তবে কোন শান্তি চুক্তির মাধ্যমে নয়, যুদ্ধবিরতির মাধ্যমে সংঘাতের ইতি টানেছিল দুই দেশ।

আনুষ্ঠানিকভাবে যুদ্ধের সমাপ্তি ঘোষণা না করায় এখনো কাগজে কলমে যুদ্ধে লিপ্ত রয়েছে দেশ দুটি। যেখানে শুরু থেকেই নর্থ কোরিয়াকে চীন ও সাউথ কোরিয়াকে সমর্থন দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

তবে এবার ৭০ বছরের পুরনো এই যুদ্ধের আনুষ্ঠানিক ইতি টানতে একমত হয়েছে দেশ দুটি। এছাড়া এতে সম্মতি জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও চীন। অস্ট্রেলিয়া সফরে যাওয়া সাউথ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জ্যা ইন এক সংবাদ সম্মেলনে এই কথা জানান।

তবে এই বিষয়ে আলোচনায় বসতে নর্থ কোরিয়ার শর্ত বাঁধা সৃষ্টি করছে বলে উল্লেখ করেন মুন। জানান, আলোচনা শুরুর পূর্বশর্ত হিসেবে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার ও যুক্তরাষ্ট্রের শত্রুতামূলক নীতি বন্ধের দাবি জানিয়েছে নর্থ কোরিয়া।

সেপ্টেম্বরে দেশটির নেতা কিম জং-উনের বোন কিম ইয়ো-জং আলোচনায় বসার বিপরীতে এই সব শর্ত জুড়ে দেন জং। সাউথ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জ্যা ইন জানান, কোরীয় যুদ্ধের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তির ঘোষণা দিতে নীতিগতভাবে একমত হয়েছে নর্থ ও সাউথ কোরিয়া, যুক্তরাষ্ট্র এবং চীন।

তবে আলোচনার আগে কিছু শর্ত আরোপ করেছে উত্তর কোরিয়া। যার কারণে এখনো আলোচনায় বসা সম্ভব হয় নি। শিগগিরি এই বিষয়ে আলোচনা শুরুর কথা জানিয়েছেন মুন জ্যা ইন। এই পদক্ষেপ নর্থ কোরিয়াকে পারমাণবিক অস্ত্র তৈরিতে নিরুৎসাহিত করবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।